Category: মিষ্টান্ন

ঝামেলা ছাড়াই মাত্র ৪৫ মিনিট থেকে ১ ঘন্টার মধ্যেই তৈরী করে ফেলা যাই এই মজাদার নারকেলের নাড়ু। কিন্তু কোনো এক অজানা কারণে চমৎকার এই রেসিপিটি আমাদের রান্নাঘর থেকে হারিয়ে গিয়েছে। বিশেষ বাঙ্গালী অনুষ্ঠান ছাড়া এই রেসিপিগুলির কথা আর শোনাই যায়না। নিজেকে খুব ভাগ্যবতী মনেহচ্ছে এই রেসিপিটি আপনাদের স্ক্রিনে আনতে পেরে। আশা করছি এই ডিজিটাল মাধ্যমে এই খাবারগুলি যুগের পর যুগ বেঁচে থাকবে।

নারকেলের নাড়ু তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. কোরানো নারকেল ২ কাপ
  2. ১ কাপ চিনি অথবা গুড়
  3. ঘি ১ টেবিল চামুচ
  4. ১ টি তেজপাতা
  5. ২ টুকরো দারুচিনি
  6. ২ টি ছোটো এলাচ

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

মুড়ির মোয়ার মনেহয় নতুন করে কোনো পরিচয়ের প্রয়োজন নেই। যদিও এটা এই রেসিপিটিও রান্নাঘরথেকে বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে, তারপরও নিজের কাছে একটা শান্তি লাগছে যে এই রেসিপিটি যুগ যুগ ধরে আপনাদের স্ক্রিনে বেঁচে থাকবে, পরবর্তী প্রজন্ম এরকম মজার একটা রেসিপি শিখতে পারবে।

মুড়ির মোয়া তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. মুড়ি ৩ কাপ
  2. চিনি/গুড় ১ কাপ
  3. ঘি ১ টেবিল চামুচ

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

এখনকার রেসিপি চালের নাড়ু, মানে নারকেল চালভাজার নাড়ু। গ্রাম-বাংলার এই খাবারগুলি আজ বিলুপ্তপ্রায়। মজার মজার এই খাবারগুলি আমাদের জেনারেশনই ঠিকমতো চিনি না, আর আমাদের পরের জেনারেশন তো এক্কেবারেই বঞ্চিত থেকে যাবে এই খাবারগুলি থেকে। এই বিলুপ্তপ্রায় রেসিপিটি আপনাদের স্ক্রিনে আনতে পেরে নিজেকে অনেক ভাগ্যবতী মনে হচ্ছে।

পারফেক্ট চালের নাড়ু তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. চাল ভাজা ১ কাপ
  2. কোরানো নারকেল ২ কাপ
  3. ১ কাপ চিনি অথবা গুড়
  4. ঘি ১ টেবিল চামুচ
  5. ১ টি তেজপাতা
  6. ১ টুকরো দারুচিনি
  7. ১ টি ছোটো এলাচ

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

বাচ্চাদের স্কুলে কি টিফিন দেয়া যায় এ নিয়ে মা-এর টেনশনের শেষ নাই। এটা আমার চাইতে ভালো কেউ বুঝবে বলে মনে হয়না। টিফিনটা একই সাথে স্বাস্থ্য সম্মত হতে হবে এবং অনেক সময় ধরে যাতে ভালো থাকে সেই ব্যবস্থাও থাকতে হবে। কাপকেক বানিয়ে রাখলে অন্তত ৭ দিন টিফিন নিয়ে টেনশন থাকেনা। তাই তৈরী করে দেখাচ্ছি চিজ কাপকেক।

ক্রিম চিজ তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে
– ময়দা ১.৫ কাপ
– ডিম ২ টি
– চিজ ১ কাপ
– কনডেন্সড মিল্ক ০.৫ কাপ
– বাটার ১০০ গ্রাম
– চিনি ০.২৫ কাপ
– বেকিং পাউডার ১ চা চামুচ
– ভ্যানিলা এসেন্স ০.৫ চা চামুচ

আমি এখানে চ্যাদার চিজ দিয়ে করেছি। আপনারা চাইলে চ্যাদার, ইডাম, ফ্যাটা, পারমাসন চিজ দিয়ে করতে পারেন। তবে মোজারেলা চিজ দিয়ে এটা হয়না।

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

বেকিং ছাড়া যে কত্ত সহজে, কত্ত মজার কেক তৈরী করা যায়, সেটা তৈরী করে না খেলে বুঝতে পারবেন না। তৈরী করছি নো বেইক ওরিও চিজকেক। আমি এখানে ওরিও বিস্কিট দিয়ে করেছি। আপনারা যে কোনো সাধারণ বিস্কিট যেমন মেরি বিস্কিট দিয়ে করতে পারেন।

নো-বেইক ওরিও চিজকেক তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে –

তৈরী করতে লেগেছে

  1. ওরিও বিস্কিট
    • কেকের বেইস তৈরী করতে ৩২ টি
    • কেকের টপিং-এর মধ্যে ৪ টি
  2. হেভি মিল্ক ক্রিম ১ কাপ
  3. বাটার ১০০ গ্রাম
  4. আইসং সুগার ০.৫ কাপ
  5. ক্রিম চিজ ৩ কাপ
  6. ভ্যানিলা এসেন্স ১ চা চামুচ

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমাদের চ্যানেলে সর্বোচ্চ ২য় অনুরোধ ছিলো একটা কেকের রেসিপি। চকলেট করবো না ভ্যানিলা করবো এই চিন্তা করতে করতে মাথায় আসলো রেড ভ্যালভেট কেকের কথা। এই কেকটাতে একসাথে চকলেটের টেস্ট এবং ভ্যানিলার ফ্লেভার পাওয়া যায়। খেতে খুবই মজা লাগে কেকটি, তাই আমার দর্শকদের জন্য প্রথম কেকের রেসিপি হিসেবে নিয়ে আসলাম রেড ভ্যালভেট কেক।

রেড ভ্যালভেট কেক তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে

  • কেকের ব্যাটার তৈরী করতে
    1. ২০০ গ্রাম বাটার
    2. ২ টি ডিম
    3. ২ কাপ চিনি
    4. ২ টেবিল চামুচ কোকো পাউডার
    5. ২ চা চামুচ ভ্যানিলা এসেন্স
    6. ২.৫ কাপ ময়দা
    7. ২ চা চামুচ বেকিং সোডা
    8. ২ কাপ বাটার মিল্ক
    9. ২ টেবিল চামুচ লাল রঙ (আমি বিট-এর রঙ নিয়েছি)
  • ক্রিম চিজ ফ্রস্টিং তৈরী করতে
    1. ২ কাপ আইসিং সুগার
    2. ২০০ গ্রাম বাটার
    3. ১ কাপ ক্রিম চিজ
    4. ১ টেবিল চামুচ ভ্যানিলা এসেন্স

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

পুলি পিঠা এমন একটি পিঠা যেটা খাওয়ার জন্য শীতকাল পর্যন্ত অপেক্ষা করতে হয়না। সারা বছরই এই পিঠা খাওয়া যায়। তবে আধুনিক জীবনধারার সাথে এই পিঠাগুলি কেমন যেনো হারিয়ে যেতে বসেছে।

পুলি পিঠা তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

পুলি পিঠা তৈরী করতে লাগছে –

  1. প্রয়োজন মতো চালের আটার কাই – রেসিপি এখানে
  2. নারিকেল ২ কাপ
  3. গুড় ১ কাপ
  4. তেজপাতা ১ টি
  5. দারুচিনি ৫ সেঃমিঃ
  6. ছোটো এলাচ ৩টি
  7. ভাজার জন্য প্রয়োজন মতো তেল

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আপনারা অনেকেই এই ডেসার্টটির সাথে পরিচিত আবার অনেকে পরিচিত নন। আমাদের দেশে, বিশেষ করে গ্রামাঞ্চলে শীতকালের একটা বহু প্রচলিত ডেসার্ট এই দুধ কদু। গ্রামের মানুষ বিশেষ অনুষ্ঠান, যেমন- গায়ে হলুদ, আকিকা বা নুতন জামাই ঘরে এলে সাধারণত এই ডেসার্টটি পরিবেশন করে। যারা ডেসার্টটির সাথে পরিচিত নন, তাদের গ্যারান্টি দিয়ে বলতে পারি এটা ভালো লাগবেই।

দুধ কদু তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

দুধ কদু তৈরী করতে লেগেছে

  1. লাউ ৪ কাপ
  2. দুধ (ফুল ক্রিম/হোল মিল্ক) ৮ কাপ
  3. নারিকেল ১ কাপ
  4. চিনি ১ কাপ
  5. ঘি
    1. রান্নার সময় ২ টেবিল চামুচ
    2. রান্না শেষে ১ টেবিল চামুচ
  6. কাঠ বাদাম ১ টেবিল চামুচ
  7. পেস্তা বাদাম ১ টেবিল চামুচ
  8. কিসমিস ২ টেবিল চামুচ
  9. (ঐচ্ছিক) পরিবেশনের সময় সামান্য আনার এবং বাদাম

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

একটা ঝট্ পট্ ডেসার্ট তৈরী করে দেখাচ্ছি গাজরের বরফি। এই রেসিপিটি মাত্র ২০-২৫ মিনিটে রান্না করা যায় আর একবার তৈরী করে সপ্তাহখানেক ফ্রিজে রাখা যায়। বাচ্চাদের স্কুলের টিফিনে, বিকেলে চা-এর সাথে ভীষণ ভালো লাগে খেতে।

তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

গাজরের বরফি তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. ৫০০ গ্রাম গাজর
  2. ০.৫ কাপ ঘি
  3. ৫/৬ সেন্টিমিটার দারুচিনি
  4. ২ টি তেজপাতা
  5. ৩ টি ছোটো এলাচ
  6. পেস্তা বাদাম ২ টেবিল চামুচ
  7. কিসমিস ১ টেবিল চামুচ
  8. গুঁড়ো দুধ ৪ টেবিল চামুচ

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না। আর এই রেসিপিটির ব্লগ পোস্ট আছে ঠিকানায়।

একটা সময় ছিলো যখন ডেসার্ট বলতে আমাদের দেশে ফিরনী, ডিমের পুডিং, ডিমের জর্দা এই তিনটি নামই সুপরিচিত ছিলো। অনেকেই মনেকরি এই খাবারগুলি তৈরী করা কত যে কঠিন! আমার চ্যানেলে আমি ফিরনী আর পুডিং-এর রেসিপি দেখিয়েছি, আর এখন দেখাচ্ছি ডিমের জর্দা।

ডিমের জর্দা তৈরীর পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. ফুল ক্রিম দুধ ৪ কাপ
  2. ডিম ৬ টা
  3. চিনি ১ কাপ
  4. ঘি ০.৫ কাপ
  5. এলাচ
    • দুধে ২ টি
    • রান্নায় ২/৩ টি
  6. দারুচিনি
    • ৫ সেঃমিঃ দুধে
    • ৫/৬ সেঃমিঃ রান্নায়
  7. তেজপাতা
    • দুধে ২ টি
    • রান্নায় ২ টি
  8. পেস্তা বাদাম ১ টেবিল চামুচ
  9. কাঠ বাদাম ১ টেবিল চামুচ
  10. কিশমিশ ১ টেবিল চামুচ
  11. ফুড কালার প্রয়োজন মতো

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।