Tagged: অ্যাপেটাইজার

ট্রেডিশনাল একটা নাশতা আমাদের রান্নাঘর থেকে অনেকটা হারিয়েই যাচ্ছে। সেটা অন্য কিছু না, আমাদের প্রিয় চাল ভাজা। অনেকেই মনে করেন চাল ভাজতে চুলার দগদগে আগুন দরকার, মাটির খোলে বালু গরম করে তৈরী করতে হয় এই চালভাজা। কিন্তু আপনাদের এখন দেখাচ্ছি কিভাবে আমাদের ঘরের সাধারণ বাসন দিয়ে তৈরী করা যায় এই ট্রেডিশনাল চালভাজা।

পারফেক্ট চালভাজা তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  • চাল ভাজতে
    1. চাল ১ কাপ
    2. লবণ ১ চিমটি
    3. পানি ১ টেবিল চামুচ
  • চাল ভাজা মাখাতে
    1. ০.৫ টেবিল চামুচ কাঁচা মরিচের কুচি
    2. সরিষার তেল ২ চা চামুচ
    3. ২ টেবিল চামুচ পেঁয়াজ কুচি
    4. চিমটি পরিমাণ লবণ
    5. ২ টেবিল চামুচ শসা কুচি
    6. ২ টেবিল চামুচ টমেটো কুচি
    7. সামান্য ধনে পাতা
    8. প্রয়োজন মতো লেবুর রস

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমার চ্যানেলে সবসময়ই হালকা নাশতা টাইপের রেসিপির একটা আলাদা চাহিদা রয়েছে। আর আমি তাই চেষ্টা করি কিভাবে স্বাস্থ্য সম্মত উপায়ে হালকা নাশতার রেসিপি উপস্থাপন করা যায়, বিশেষ করে শিশুদের কথা চিন্তা করে। তৈরী করে দেখাচ্ছি শ্রিম্প কেক। অ্যাপাটাইজার বলেন, বা বার্গারের প্যাটি বলেন যেভাবেই খেতে চান, এই শ্রিম্প কেকের জুড়ি নেই।

ক্রিম চিজ তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে –

  1. চিংড়ি মাছ ৫০০ গ্রাম
  2. ডিমের কুসুম ১ টি
  3. কর্ণ ফ্লাওয়ার ২ টেবিল চামুচ
  4. সয় সস ১ চা চামুচ
  5. ফিস সস ২ চা চামুচ
  6. চিনি ১ চা চামুচ
  7. গোল মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  8. কাঁচা মরিচ ২ টি
  9. পুদিনা পাতা ১ টেবিল চামুচ
  10. রসুন ৩/৪ কোয়া

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আজকের রেসিপিটি আসলে ইউটিউবার সেলিনা রহমানের। আমরা একটি কোলাবোরেশনের মাধ্যমে একজন আরেকজনের রেসিপি আমাদের দর্শকদের কাছে উপস্থাপন করছি এই উদ্দেশ্যে যে আমাদের দর্শকদের যে রান্না নিয়ে কিছু ভ্রান্ত ধারণা আছে বা ভয় আছে, সেগুলি যাতে কেটে যায়। অনেক দর্শক অভিযোগ করেন আমার রেসিপি ফলো করেও রান্না করতে পারেননি। আবার আমার রেসিপি অন্য রাধুঁনীর সাথে তুলনা করে বলেন অমুকে এই জিনিসটা দিয়েছে আপনি দিলেন না কেনো! সেজন্য আমি সেলিনা আপুর চিকেন স্টিক কাবাবটি করছি আমার মতো করে, মানে সবকিছু হুবহু ফলো না করে। শুধু দেখাতে চাই যে মূল লক্ষ্যে যাওয়ার জন্য সব ১০০% হওয়ার প্রয়োজন নেই। আশাকরি রেসিপিটি আপনাদের ভালো লাগবে।

চিকেন স্টিক কাবাব তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে

  1. চর্বি/হাড় ছাড়া মুরগীর মাংস ৫০০ গ্রাম
  2. ৪/৫ টি রসুনের কোয়া
  3. ৩/৪ টি কাঁচা মরিচ
  4. ১ টেবিল চামুচ পুদিনা পাতা
  5. ১ টেবিল চামুচ ধনে পাতা
  6. আদা বাটা ১ চা চামুচ
  7. ২ টেবিল চামুচ টক দৈ
  8. লবণ ০.৫ চা চামুচ
  9. অলিভ ওয়েল ১ টেবিল চামুচ
  10. ০.৫ চা চামুচ গরম মশলার গুঁড়ি
  11. গোল মরিচ ০.৫ চা চামুচ

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমার অগনিত দর্শক আমাকে মাঝে মধ্যে অনুরোধ করেছেন বিকেল বেলায় নাশতা হিসেবে খাবার জন্য বা বাচ্চাদের স্কুলে টিফিন দেবার জন্য সহজ কিছু স্ন্যাক্সের রেসিপি দিতে। সেজন্য আমি খুবই সহজ একটা স্ন্যাক্স-এর রেসিপি দিচ্ছি, পটেটো চীজ বল। আশাকরি সবার ভালো লাগবে….

পটেটো চীজ বল তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. ১ কেজি আলু
  2. ২ টেবিল চামুচ বাটার
  3. প্রয়োজন মতো মোজারেলা চীজ
  4. ১.৫ চা চামুচ লবণ
  5. ধনে পাতা ১ টেবিল চামুচ
  6. পুদিনা পাতা ১ টেবিল চামুচ
  7. ১ চা চামুচ গোল মরিচের গুঁড়ি
  8. ১ চা চামুচ আধা ভাঙ্গা শুকনো মরিচ (শুকনো মরিচ)
  9. প্রয়োজন মতো ব্রেড ক্রাম্ব

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

সিপি’র ফাস্টফুডগুলি আমাদের এখানে ভালো জনপ্রিয়তা পেয়েছে, আর খাবারগুলি এতো টেস্টি যে খাওয়ার সময় মোটামুটি সবারই মাথায় একটা প্রশ্ন থাকে যে এটা কিভাবে তৈরী করেছে। এখন তৈরী করে দেখাচ্ছি সিপি স্টাইল চিকেন ললিপপ রেসিপি।

একটা বিষয় উল্লেখ করে রাখা প্রযোজন, দোকানের সাথে কিন্তু আমাদের স্বাদের তারতম্য হবে, কারন ফুড ইন্ডাস্ট্রিতে টেস্টিং সল্ট বা অনেক ধরণের ফুড স্ট্যাবিলাইজার ব্যবহার করে, যেগুলি আমার কাছে স্বাস্থ্যে সন্মত মনেহয়না। স্বাদের পাশাপাশি স্বাস্থ্যের বিষয়টাও কিন্তু মাথায় রাখতে হবে।

সিপি স্টাইল চিকেন ললিপপ তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লেগেছে –

  1. মুরগির মাংসের কিমা ২ কাপ
  2. ডিম ১ টি
  3. ময়দা ০.২৫ কাপ
  4. কর্ণ ফ্লাওয়ার ০.২৫ কাপ
  5. রসুন বাটা ১ চা চামুচ
  6. আদা বাটা ০.৫ চা চামুচ
  7. টমেটো সস ২ টেবিল চামুচ
  8. সয় সস ১ টেবিল চামুচ
  9. ফিশ সস ২ টেবিলপ চামুচ
  10. ১০/১২ টি পুদিনা পাতা
  11. ৩/৪ টি কাঁচা মরিচ
  12. ৩/৪ টি শুকনো মরিচ
  13. ০.৫ চা চামুচ গোল মরিচের গুঁড়ি

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

১ম পর্বে স্টিমার ব্যবহার করে ডাম্পলিং চিকেন তৈরী করার ধাপগুলি সুন্দরভাবে দেখানো হয়েছে। যাদের স্টিমার নেই, তাদের জন্য আজকের এই ভিডিও। ভিডিওটি ফলো করার আগে ১ম পর্বটি ভালো করে দেখে নেবেন।

ডাম্পলিং তৈরীর পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

১ম পর্ব দেখতে এখানে ক্লিক্ করুন।

ইদানিং ডাম্পলিং আমাদের দেশে ভীষণ জনপ্রিয়তা পেয়েছে। যদিও এলাকা বিশেষে এটা মম নামে পরিচিত, তবে বেশীরভাগ ক্ষেত্রেই এই রেসিপিটি ডাম্পলিং নামে পরিচিত।

ডাম্পলিং তৈরীর পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

ডাম্পলিং তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  • ডাম্পলিং শিট তৈরী করতে
    1. ময়দা ১.৫ কাপ
    2. কর্ণ ফ্লাওয়ার ১ টেবিল চামুচ
    3. লবণ ০.২৫ চা চামুচ
  • পুর তৈরী করতে
    1. মুরগির মাংসের কিমা ২ কাপ
    2. পেঁয়াজ কুঁচি ১ কাপ
    3. ডার্ক সয় সস ১ টেবিল চামুচ
    4. ফিশ সস ২ টেবিল চামুচ (হাতের নাগালে না পেলে ১ চা চামুচ লবণ দিয়ে দেবেন)
    5. ২ টেবিল চামুচ সিসিম ওয়েল (অন্য রান্নার তেলও ব্যবহার করতে পারেন)
    6. গোল মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
    7. ১ টেবিল চামুচ রসুন কুঁচি
    8. কর্ণ ফ্লাওয়ার ১ টেবিল চামুচ
  • ডিপিং সস তৈরীতে
    1. কাঁচা মরিচ ২ টি
    2. চিনি ০.৫ চা চামুচ
    3. ডার্ক সয় সস ১ টেবিল চামুচ
    4. আপেল/সাদা ভিনেগার ২ টেবিল চামুচ
  • গ্রিন সস-এর রেসিপি এখানে

২য় পর্বের লিঙ্ক: http://rumana.net/1357

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

দেশে বিদেশে টুনা মাছ এখন বেশ জনপ্রিয়, আর প্রবাসীদের জন্য টুনা মাছ ভীষণ সহজলভ্য। আজকে টুনা মাছ দিয়ে একটা অন্যরকম একটা পাকোড়া তৈরী করে দেখাচ্ছি, প্যান ফ্রাইড টুনা। এই প্যান ফ্রাইড টুনা আপনারা চাইলে অ্যাপেটাইজার হিসেবে, বিকেলের নাশতা হিসেবে খেতে পারেন। আবার বাচ্চাদের জন্য বার্গারের পেটি হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। টুনা মাছে এমনিতেই ফ্যাট বা কোলেস্টেরল থাকেনা, আবার টুনা মাছ রান্না/ভাজার সময় কোনো তেল শোষন করেনা। তাই টুনা মাছ দিয়ে তৈরী যে-কোনো রেসিপি অনেক টেস্টি এবং হেলদি।

প্যান ফ্রাইড টুনা মাছের পাকোড়া তৈরীর পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

পাকোড়াটা তৈরী করতে লাগছে:

  1. টুনা মাছ – ৪০০ গ্রাম (টাটকা বা ভেজিটেবল ওয়েল ক্যানে)
  2. ৫/৬ কোয়া রসুন
  3. ৪/৫ টি কাঁচা মরিচ
  4. ৪ ডাটি পুদিনা পাতা
  5. ০.৫ কাপ পেঁয়াজ কুচি
  6. ২ টি ডিম
  7. ২ টেবিল চামুচ ময়দা
  8. ০.৫ চা চামুচ গোল মরিচের গুঁড়ি
  9. ১ চা চামুচ বেকিং পাউডার
  10. স্বাদ অনুযায়ি লবণ (আমি ১ চা চামুচ দিয়েছিলাম)
  11. ১ টেবিল চামুচ ব্রেড ক্রাম্ব
  12. রান্নার তেল ২ চা চামুচ
  13. ১ টেবিল চামুচ কর্ণ ফ্লাওয়ার

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

চিকেন ফ্রাই’র অনেকগুলো রেসিপি আছে এবং কমবেশী আমরা সবাই চিকেন ফ্রাই পছন্দ করি। উইংস্টপে প্রথম ক্রিসপি হানি চিকেন খেয়েই ভালো লেগে যায়, পরে শেফের কাছে শিখে নিয়েছিলাাম এটার রেসিপি। শিখে নিন ক্রিসপি হানি চিকেন উইং রেসিপি – উইংস্টপ স্টাইলে।

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

হানি চিকেন উইং তৈরী করতে যা যা লেগেছে…

  1. চামড়া সহ চিকেন উইং ৫০০ গ্রাম
  2. কর্ণ ফ্লাওয়ার ০.৫ কাপ
  3. টমেটো সস ০.২৫ কাপ
  4. মধু ৩ টেবিল চামুচ
  5. ময়দা ১ কাপ
  6. বেকিং পাউডার ২ চা চামুচ
  7. ডিম ১ টা
  8. লবণ
    • চিকেন মেরিনেশনে ০.২৫ চা চামুচ
    • ব্যাটারে ০.২৫ চা চামুচ
  9. রান্নার তেল
    • ব্যাটারে ২ টেবিল চামুচ
    • ভাজার সময় প্রয়োজন মতো
  10. রসুন বাটা
    • চিকেন মেরিনেশনে ১ চা চামুচ
    • ব্যাটারে ০.২৫ চা চামুচ
  11. আদা বাটা ০.৫ চা চামুচ
  12. ডার্ক সয় সস ১ চা চামুচ
  13. গোল মরিচের গুঁড়ি ০.৫ চা চামুচ
  14. ঠান্ডা পানি
    • ব্যাটারে ০.৫ কাপ
    • হানি সসে ৩ টেবিল চামুচ
  15. লবণ ০.২৫ চা চামুচ
  16. চিনি ৩ টেবিল চামুচ
  17. পরিবেশনের জন্য প্রয়োজন মতো তিল

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমি পুরান ঢাকার যে বাবুর্চির কাছে কাবাবের রান্না শিখেছি, উনার কাছে একদিন শুনেছিলাম যে এই কাবাবটি একসময় বাংলাদেশে ভীষণ জনপ্রিয় ছিলো, বিশেষ করে পুরান ঢাকায়। কিন্তু হয়তোবা তৈরী করার প্রসেসটা একটু জটিল হওয়ায় এই কাবাবটার জনপ্রিয়াতা ধীরে ধীরে কমে গিয়েছে। তবে আজকে আমি রেসিপিটি আপনাদের সাথে শেয়ার করছি এবং আশা করছি আপনাদের অনেক পছন্দ হবে।

চলুন দেখি কাকড়ি কাবাব তৈরীর পদ্ধতি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

মাংসের কিমা ১ কেজি (গরু/খাসির মাংস)

  1. ১ কাপ বেরেশতার জন্য প্রয়োজন মতো পেঁয়াজ
  2. দারুচিনি প্রায় ৫ সেন্টিমিটার
  3. ছোটো এলাচ ৫/৬ টি
  4. ১ চা চামুচ ধনে
  5. ১ চা চামুচ জিরা
  6. কালো গোল মরিচ ১ চা চামুচ
  7. লবঙ্গ ১ চা চামুচ
  8. শুকনো মরিচ ৫/৬ টি
  9. প্রয়োজন মতো কাঁচা মরিচ
    • কাবাবে ১ টেবিল চামুচ কুঁচি
    • সস তৈরী করতে ২ টি
  10. গরম মশলার গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  11. প্রয়োজন মতো রসুন
    • কাবাবে ২ টেবিল চামুচ রসুন কুঁচি
    • সস তৈরীতে ১টি কোয়া
  12. আদা কুঁচি ১ টেবিল চামুচ
  13. টক দৈ ০.৫ কাপ
  14. নারিকেল ০.৫ কাপ
  15. প্রয়োজন মতো লবণ
    • কাবাবে ১ চা চামুচ
    • সস তৈরীতে ০.৫ চা চামুচ
  16. পুদিনা পাতা ১০/১২ টি
  17. ধনে পাতা প্রয়োজন মতো
    • সস তৈরী করতে ৫/৬ ডাটি
    • কাবাব ভাজতে প্রয়োজন মতো
  18. প্রয়োজন মতো রান্নার তেল

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।