Tagged: বেকিং পাউডার

বাচ্চাদেরকে টিফিনে কি দেয়া যায়, বা বিকেলের নাশতায় কি দেয়া যায়, সে নিয়ে চিন্তার অন্ত নেই। আর ঘরে যদি একটা চকলেট ব্রাউনি তৈরী করা থাকে, তাহলে মায়েদের আর টেনশন নেই। অন্তত সাত দিনের জন্য তো টেনশন ফ্রি থাকা যাবে। অন্যান্য কেক তৈরী করার চাইতে ঝামেলা একটু বেশী হলেও বাচ্চারা অন্য সব কেক থেকে ব্রাউনিটাই বেশী পছন্দ করে। অন্তত আমার বাচ্চাতো ব্রাউনি পেলে আর কিছুই চায়না।

চকলেট ব্রাউনি তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে

  1. চকলেট চিপস ২০০ গ্রাম
  2. ময়দা ১ কাপ
  3. আইসিং সুগার ১ কাপ
  4. বাটার ২০০ গ্রাম
  5. ডিম ৫ টি
  6. ভ্যানিলা এসেন্স ১ চা চামুচ
  7. বেকিং পাউডার ০.৫ চা চামুচ

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

বাচ্চাদের স্কুলে কি টিফিন দেয়া যায় এ নিয়ে মা-এর টেনশনের শেষ নাই। এটা আমার চাইতে ভালো কেউ বুঝবে বলে মনে হয়না। টিফিনটা একই সাথে স্বাস্থ্য সম্মত হতে হবে এবং অনেক সময় ধরে যাতে ভালো থাকে সেই ব্যবস্থাও থাকতে হবে। কাপকেক বানিয়ে রাখলে অন্তত ৭ দিন টিফিন নিয়ে টেনশন থাকেনা। তাই তৈরী করে দেখাচ্ছি চিজ কাপকেক।

ক্রিম চিজ তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে
– ময়দা ১.৫ কাপ
– ডিম ২ টি
– চিজ ১ কাপ
– কনডেন্সড মিল্ক ০.৫ কাপ
– বাটার ১০০ গ্রাম
– চিনি ০.২৫ কাপ
– বেকিং পাউডার ১ চা চামুচ
– ভ্যানিলা এসেন্স ০.৫ চা চামুচ

আমি এখানে চ্যাদার চিজ দিয়ে করেছি। আপনারা চাইলে চ্যাদার, ইডাম, ফ্যাটা, পারমাসন চিজ দিয়ে করতে পারেন। তবে মোজারেলা চিজ দিয়ে এটা হয়না।

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

বেকিং ছাড়া যে কত্ত সহজে, কত্ত মজার কেক তৈরী করা যায়, সেটা তৈরী করে না খেলে বুঝতে পারবেন না। তৈরী করছি নো বেইক ওরিও চিজকেক। আমি এখানে ওরিও বিস্কিট দিয়ে করেছি। আপনারা যে কোনো সাধারণ বিস্কিট যেমন মেরি বিস্কিট দিয়ে করতে পারেন।

নো-বেইক ওরিও চিজকেক তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে –

তৈরী করতে লেগেছে

  1. ওরিও বিস্কিট
    • কেকের বেইস তৈরী করতে ৩২ টি
    • কেকের টপিং-এর মধ্যে ৪ টি
  2. হেভি মিল্ক ক্রিম ১ কাপ
  3. বাটার ১০০ গ্রাম
  4. আইসং সুগার ০.৫ কাপ
  5. ক্রিম চিজ ৩ কাপ
  6. ভ্যানিলা এসেন্স ১ চা চামুচ

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমাদের চ্যানেলে সর্বোচ্চ ২য় অনুরোধ ছিলো একটা কেকের রেসিপি। চকলেট করবো না ভ্যানিলা করবো এই চিন্তা করতে করতে মাথায় আসলো রেড ভ্যালভেট কেকের কথা। এই কেকটাতে একসাথে চকলেটের টেস্ট এবং ভ্যানিলার ফ্লেভার পাওয়া যায়। খেতে খুবই মজা লাগে কেকটি, তাই আমার দর্শকদের জন্য প্রথম কেকের রেসিপি হিসেবে নিয়ে আসলাম রেড ভ্যালভেট কেক।

রেড ভ্যালভেট কেক তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে

  • কেকের ব্যাটার তৈরী করতে
    1. ২০০ গ্রাম বাটার
    2. ২ টি ডিম
    3. ২ কাপ চিনি
    4. ২ টেবিল চামুচ কোকো পাউডার
    5. ২ চা চামুচ ভ্যানিলা এসেন্স
    6. ২.৫ কাপ ময়দা
    7. ২ চা চামুচ বেকিং সোডা
    8. ২ কাপ বাটার মিল্ক
    9. ২ টেবিল চামুচ লাল রঙ (আমি বিট-এর রঙ নিয়েছি)
  • ক্রিম চিজ ফ্রস্টিং তৈরী করতে
    1. ২ কাপ আইসিং সুগার
    2. ২০০ গ্রাম বাটার
    3. ১ কাপ ক্রিম চিজ
    4. ১ টেবিল চামুচ ভ্যানিলা এসেন্স

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

দেশে বিদেশে টুনা মাছ এখন বেশ জনপ্রিয়, আর প্রবাসীদের জন্য টুনা মাছ ভীষণ সহজলভ্য। আজকে টুনা মাছ দিয়ে একটা অন্যরকম একটা পাকোড়া তৈরী করে দেখাচ্ছি, প্যান ফ্রাইড টুনা। এই প্যান ফ্রাইড টুনা আপনারা চাইলে অ্যাপেটাইজার হিসেবে, বিকেলের নাশতা হিসেবে খেতে পারেন। আবার বাচ্চাদের জন্য বার্গারের পেটি হিসেবেও ব্যবহার করতে পারেন। টুনা মাছে এমনিতেই ফ্যাট বা কোলেস্টেরল থাকেনা, আবার টুনা মাছ রান্না/ভাজার সময় কোনো তেল শোষন করেনা। তাই টুনা মাছ দিয়ে তৈরী যে-কোনো রেসিপি অনেক টেস্টি এবং হেলদি।

প্যান ফ্রাইড টুনা মাছের পাকোড়া তৈরীর পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

পাকোড়াটা তৈরী করতে লাগছে:

  1. টুনা মাছ – ৪০০ গ্রাম (টাটকা বা ভেজিটেবল ওয়েল ক্যানে)
  2. ৫/৬ কোয়া রসুন
  3. ৪/৫ টি কাঁচা মরিচ
  4. ৪ ডাটি পুদিনা পাতা
  5. ০.৫ কাপ পেঁয়াজ কুচি
  6. ২ টি ডিম
  7. ২ টেবিল চামুচ ময়দা
  8. ০.৫ চা চামুচ গোল মরিচের গুঁড়ি
  9. ১ চা চামুচ বেকিং পাউডার
  10. স্বাদ অনুযায়ি লবণ (আমি ১ চা চামুচ দিয়েছিলাম)
  11. ১ টেবিল চামুচ ব্রেড ক্রাম্ব
  12. রান্নার তেল ২ চা চামুচ
  13. ১ টেবিল চামুচ কর্ণ ফ্লাওয়ার

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

চিকেন ফ্রাই’র অনেকগুলো রেসিপি আছে এবং কমবেশী আমরা সবাই চিকেন ফ্রাই পছন্দ করি। উইংস্টপে প্রথম ক্রিসপি হানি চিকেন খেয়েই ভালো লেগে যায়, পরে শেফের কাছে শিখে নিয়েছিলাাম এটার রেসিপি। শিখে নিন ক্রিসপি হানি চিকেন উইং রেসিপি – উইংস্টপ স্টাইলে।

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

হানি চিকেন উইং তৈরী করতে যা যা লেগেছে…

  1. চামড়া সহ চিকেন উইং ৫০০ গ্রাম
  2. কর্ণ ফ্লাওয়ার ০.৫ কাপ
  3. টমেটো সস ০.২৫ কাপ
  4. মধু ৩ টেবিল চামুচ
  5. ময়দা ১ কাপ
  6. বেকিং পাউডার ২ চা চামুচ
  7. ডিম ১ টা
  8. লবণ
    • চিকেন মেরিনেশনে ০.২৫ চা চামুচ
    • ব্যাটারে ০.২৫ চা চামুচ
  9. রান্নার তেল
    • ব্যাটারে ২ টেবিল চামুচ
    • ভাজার সময় প্রয়োজন মতো
  10. রসুন বাটা
    • চিকেন মেরিনেশনে ১ চা চামুচ
    • ব্যাটারে ০.২৫ চা চামুচ
  11. আদা বাটা ০.৫ চা চামুচ
  12. ডার্ক সয় সস ১ চা চামুচ
  13. গোল মরিচের গুঁড়ি ০.৫ চা চামুচ
  14. ঠান্ডা পানি
    • ব্যাটারে ০.৫ কাপ
    • হানি সসে ৩ টেবিল চামুচ
  15. লবণ ০.২৫ চা চামুচ
  16. চিনি ৩ টেবিল চামুচ
  17. পরিবেশনের জন্য প্রয়োজন মতো তিল

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

বাসবুসা বা সেমোলিনা কেক নামটি আমাদের অনেকের কাছে তেমন পরিচিত না হলেও সুজি দিয়ে তৈরী এই কেকটি মধ্যপ্রাচ্যের ভীষন জনপ্রিয় একটি ডেসার্ট। খুবই কম সময়ে আর খুবই কম খাটুনিতে তৈরী করা যায় এই অসাধারণ ডেসার্ট। বাসবুসা অনেকেই অনেকভাবে তৈরী করে থাকেন, তবে আমি বাসায় সবসময় যে পদ্ধতিতে তৈরী করে থাকি সেটা দেখাচ্ছি।

দেখি বাসবুসা তৈরী করার প্রক্রিয়া –

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

বাসবুসা তৈরী করতে যা যা লেগেছে…

  1. ১ কাপ সুজি
  2. ময়দা ১ কাপ
  3. বেকিং পাউডার ২ চা চামুচ
  4. ডিম ৩ টি
  5. বাটার ০.৫ কাপ
  6. নারকেল ০.৫ কাপ
  7. চিনি
    1. কেকের মধ্যে ১ কাপ
    2. ২ কাপ চিনির শিরায়
  8. টক দৈ ১ কাপ
  9. ভ্যানিলা এসেন্স ২ চা চামুচ
  10. গোলাপ জল ১ টেবিল চামুচ

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক https://fb.com/rumanaranna পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

গোলাপ পিঠা আমাদের দেশের ভীষণ জনপ্রিয় একটি পিঠা, বানাতেও সহজ আবার খেতেও ভীষন মজা। আমি গতানুগতিক গোলাপ পিঠাটাকে এবার তেলে ভেজে চিনির সিরায় না ভিজিয়ে আপেল আর চিনি দিয়ে ক্যারামেলাইজ করলাম। খুবই সহজ একটা রেসিপি, অনেক জুসি, অনেক টেস্টি। ভিডিওটা দেখে অবশ্যই তৈরী করবেন আশা করছি।

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

আপেল গোলাপ পিঠা তৈরী করতে যা যা লেগেছে…

  1. ১ কাপ ময়দা
  2. আপেল ১ টা
  3. গুঁড়ো দুধ ২ টেবিল চামুচ
  4. ১ টেবিল চামুচ ঘি
  5. ১.৫ টেবিল চামুচ রান্নার তেল
  6. ক্রিম চিজ ২ চা চামুচ
  7. ৪ চা চামুচ চিনি
  8. লবণ ০.৫ চা চামুচ
  9. বেকিং পাউডার ০.৫ চা চামুচ
  10. ফ্যাটানো ডিম প্রয়োজন মতো

ব্যস্ততার কারনে বাংলাদেশী রেসিপিতে একটা গোটা মুরগি রান্না করা একটু ঝামেলার মনে হয় মাঝে মাঝে। আবার অনেকে মুরগির মাংসের বুকের অংশটা খেতে পছন্দ করেন না। আমাদের এই রেসিপিটা যেমন ঝট্‌পট্‌ রান্না করা যায়, ঠিক তেমনি বুকের অংশের মাংসটা এমন জুসি হয় যে মনে হয়না বুকের না রানের বা থাইর মাংস।

চলুন দেরী না করে ভিডিওতে দেখি এই রেসিপিটি তৈরীর উপায়:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

স্ট্যার ফ্রাইড চিকেন তৌরী করতে যা যা লাগছে…

মুরগীর মাংস ৩০০ গ্রাম (হাড় ছাড়া)
কর্ণ ফ্লাওয়ার – ২ চা চামুচ
আদা কুঁচি – ১ টেবিল চামুচ
রসুন কুঁচি – ১.৫ টেবিল চামুচ
গোলমরিচের গুঁড়ি – আধা চা চামুচ
বাটার – ২ টেবিল চামুচ
বেকিং পাউডার – আধা চা চামুচ
লবণ – স্বাদ মতো
সয় সস – ১ টেবিল চামুচ
সামান্য তিল ভাজা

খুব মজাদার একটা খাবার এগ মাফিন। চট্ পট্ গেস্টদের আপ্যায়ন করতে বা বাচ্চার স্কুলের টিফিনে এগ মাফিন একটা ভালো আইটেম। মাত্র পাঁচ মিনিটে শিখে নিন এগ মাফিন তৈরীর প্রক্রিয়া:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

৬টি এগ মাফিন তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. ৩টি ডিম
  2. প্রয়োজন মতো ক্যাপসিকাম
  3. প্রয়োজন মতো টমেটো
  4. প্রয়োজন মতো পেঁয়াজ
  5. প্রয়োজন মতো চিকেস সসেজ
  6. প্রয়োজন মতো ধনে পাতা কুঁচি
  7. আধা কাপ দুধ
  8. প্রয়োজন মতো চিজ
  9. প্রয়োজন মতো গোলমরিচ গুঁড়ি
  10. আধা চা চামুচ লবণ
  11. আধা চা চামুচ বেকিং পাউডার
  12. প্রয়োজন মতো রান্নার তেল