Tagged: আমিষ

ছোট্ট সোনামনিদের জন্য আমরা কত কিছুই না করে থাকি। আর সোনামনিরা যখন সারাদিন না খেয়ে রোযা থাকে, তখন আমাদেরও মন চায় তাদের পছন্দের খাবার ইফতারের প্লেটে তুলে দিতে। সোনামনিদের খুশি মানেই আমরা খুশি। আর তাই তৈরী করে দেখাচ্ছি পপ চিকেন। হাড় ছাড়া এই চিকেন ফ্রাইটি সোনামনিরা ভীষণ পছন্দ করবে।

তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লাগছে –

  • চিকেন প্রিপিয়ার করতে
    1. হাড় ছাড়া মুরগির মাংস ২৫০ গ্রাম
    2. ডিম ১ টা
    3. আদা বাটা ০.৫ চা চামুচ
    4. রসুন বাটা ০.৫ চা চামুচ
    5. গোল মরিচের গুঁড়ি ০.৫ চা চামুচ
    6. শুকনো মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
    7. সয় সস ২ টেবিল চামুচ
    8. কর্ণ ফ্লাওয়ার ১ টেবিল চামুচ
  • কোটিং প্রিপিয়ার করতে
    1. ১ কাপ ময়দা
    2. ব্রেড ক্রাম্ব ০.২৫ কাপ
    3. শুকনো মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
    4. লবণ ০.২৫ চা চামুচ
    5. গোল মরিচের গুঁড়ি ০.৫ চা চামুচ

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমরা সবসময়ই চাই বাচ্চাদের জন্য স্বাস্থ্যকর খাবার তৈরী করতে। অনেকটা সময় না খেয়ে থাকার পরে এমন কিছু দিতে যা খেলে আমরা খুব সহজেই আমাদের এনার্জি ফিরে পাই। এই চিজ বলটা একই সাথে যেমন স্বাস্থ্যসন্মত তেমনই এনার্জি ফিরে পেতে সাহায্য করবে। তৈরী করে দেখাচ্ছি শ্রিম্প চিজ বল।

তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে –

  1. চিংড়ি মাছ ৫০০ গ্রাম
  2. মোজারেলা চিজ প্রয়োজন মতো
  3. ডিমের কুসুম ১ টি
  4. কর্ণ ফ্লাওয়ার ২ টেবিল চামুচ
  5. সয় সস ১ চা চামুচ
  6. ফিস সস ২ চা চামুচ (না থাকলে ১ চা চামুচ লবণ দিয়ে দেবেন)
  7. চিনি ১ চা চামুচ
  8. গোল মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  9. কাঁচা মরিচ ২ টি
  10. পুদিনা পাতা ১ টেবিল চামুচ
  11. রসুন ৩/৪ কোয়া

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

ইলিশ মাছ দিয়ে আমাদের রেসিপির কোনো শেষ নাই, কিন্তু ইলিশ মাছের মাথা দিয়ে কি করবো সেটা নিয়ে একটু দ্বিধার মধ্যে থাকি আমরা। এখন ইলিশের মাথা আর কচুশাক দিয়ে খুব মজার একটা তরকারি তৈরী করে দেখাচ্ছি।

তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লাগছে –

  1. ২ টি ইলিশ মাছের মাথা (আনুমানিক ২৫০ গ্রাম)
  2. কচু শাক ১ কেজি
  3. পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ
  4. রান্নার তেল ০.৫ কাপ
  5. গোটা জিরা ০.৫ চা চামুচ
  6. রসুন বাটা ১ চা চামুচ
  7. আদা বাটা ০.৫ চা চামুচ
  8. শুকনো মরিচের গুঁড়ি ১ টেবিল চামুচ
  9. চিমটি পরিমাণ হলুদের গুঁড়ি
  10. ধনে গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  11. জিরা বাটা ১ চা চামুচ
  12. লবণ
    • শাক সেদ্ধ করতে ১ চা চামুচ
    • রান্নাতে ০.৫ চা চামুচ
  13. কাঁচা মরিচ ৬/৭ টি
  14. গোটা রসুন ৬/৭ কোয়া
  15. ভাজা জিরা গুঁড়ি ০.৫ চা চামুচ

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

ইলিশ মাছের তো অনেক রেসিপি দেখলাম। কিন্তু মাথা আর লেজ দিয়ে কি করবো!!! মাথা দিয়ে কি করবো সেটা নাহয় আরেকদিন দেখবো, এখন ইলিশের লেজ এবং কাটা বেশী আছে এরকম অংশগুলি দিয়ে তৈরী করছি ইলিশ মাছের ট্রেডিশনাল ভর্তা।

তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লাগছে –

  1. ২৫০ গ্রাম ইলিশ মাছ (মাছের পেছনের অংশটা নিয়েছি)
  2. ১ টেবিল চামুচ মরিচের গুঁড়ি
  3. চিমটি পরিমাণ হলুদের গুঁড়ি
  4. ০.৫ চা চামুচ ধনে গুঁড়ি
  5. লবণ: মসলা মাখাতে ১ চা চামুচ, ভর্তা মাখাতে ০.৫ চা চামুচের একটু কম
  6. ৪/৫ টি শুকনো মরিচ
  7. পেঁয়াজ কুচি ০.৫ কাপ
  8. ২ চা চামুচ সরিষার তেল
  9. ১ চা চামুচ রসুন কুচি

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

যারা ভালো হোটেলে টাকি মাছের ভর্তা একবার খেয়েছেন, মনে হয়না সেই স্বাদ কোনোভাবে ভুলতে পেরেছেন। আর হোটেলের ভালো স্বাদের খাবারগুলির মতো বাসায় তৈরী করতে না পারলে একটা আক্ষেপ থেকেই যায়। কিন্তু “রুমানার রান্নাবান্না” থাকতে আপনাদের টেনশন নেই! তৈরী করে দেখাচ্ছি টাকি মাছের ভর্তা, বড় হোটেলের রেসিপিতে।

তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লাগছে –

  1. ৬ টি টাকি মাছ (আনুমানিক ৫০০ গ্রাম)
  2. পেঁয়াজ কুচি ০.৫ কাপ
  3. রসুন কুচি ১ টেবিল চামুচ
  4. আদা কুচি ১ চা চামুচ
  5. শুকনো মরিচ ৫ টি
  6. লবণ
    • মেরিনেশনে ০.৫ চা চামুচ
    • ভর্তার সময় ০.৫ চা চামুচ
  7. শুকনো মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  8. হলুদের গুঁড়ি চিমটি পরিমান

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমাদের কাছে একটা অভিযোগ খুব কমন, সুস্বাদু রান্নাগুলি তৈরীর প্রসেস এতো জটিল কেনো! তাই এখন ইলিশ মাছের একটা রেসিপি নিয়ে আসলাম যেটা তৈরী করতে কোনো ঝামেলাই নেই। তৈরী করছি ভাপা ইলিশ, যা তৈরী হবে ভাপ-এর মধ্য দিয়ে।

তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লাগছে –

  1. ইলিশ মাছ ৪ টুকরো (আনুমানিক ৫০০ গ্রাম)
  2. সরিষা বাটা ২ টেবিল চামুচ
  3. পেঁয়াজ বাটা ২ টেবিল চামুচ
  4. সরিষার তেল ০.২৫ কাপ
  5. শুকনো মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  6. চিমটি পরিমান হলুদের গুঁড়ি
  7. ধনে গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  8. রসুন বাটা ১ চা চামুচ
  9. জিরা বাটা ২ চা চামুচ
  10. কাঁচা মরিচ ৫/৬ টি
  11. লবণ ১ চা চামুচ

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

ইলিশ মাছ নিয়ে বাঙ্গালীর রসনার যেনো শেষ নেই, আছে স্বাদের সেরা মজার মজার রেসিপি। কোনোটি তৈরী করা সহজ আবার কোনোটি একটু জটিল। সময়ের অভাবে আমরা সবসময়ই সহজ রেসিপিগুলি অনুশীলন করি। আর সেরকমই একটা সহজ রেসিপি নিয়ে আসলাম ইলিশ ভুনা খিচুড়ি।

তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লাগছে

  • খিচুড়ির মধ্যে
    1. পোলাওর চাল ২ কাপ
    2. মুগ ডাল ১ কাপ
    3. পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ
    4. পেঁয়াজ বেরেস্তা ০.৫ কাপ
    5. কাঁচা মরিচ ৫/৬ টি
    6. রান্নার তেল ০.৫ কাপ
    7. তেজ পাতা ১টি
    8. দারুচিনি ২ টুকড়ো (আনুমানিক ১০ সেঃমিঃ)
    9. বড় এলাচ ১টি
    10. ছোটো এলাচ ৩/৪ টি
    11. লং ৫/৬ টি
    12. রসুন বাটা ১ টেবিল চামুচ
    13. আদা বাটা ১ টেবিল চামুচ
    14. কাঁচা জিরা বাটা ১ চা চামুচ
    15. হলুদের গুঁড়ি ০.৫ চা চামুচ
    16. শুকনো মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
    17. ধনে গুঁড়ি ১ টেবিল চামুচ
    18. লবণ ২ চা চামুচ
  • ইলিশ ম্যরিনেড করতে
    1. ইলিশ মাছ ৪ টুকড়ো (আনুমানিক ৪৫০ গ্রাম)
    2. টক দৈ ০.৫ কাপ
    3. জিরা বাটা ১ চা চামুচ
    4. পেঁয়াজ বাটা ১ টেবিল চামুচ
    5. সরিষা বাটা ১ টেবিল চামুচ
    6. ধনে গুঁড়ি ১ চা চামুচ
    7. শুকনো মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
    8. হলুদের গুঁড়ি চিমটি পরিমাণ
    9. লবণ ১ চা চামুচ
    10. সরিষার তেল ১ টেবিল চামুচ
    11. পেঁয়াজ বেরেস্তা ০.৫ কাপ

তৈরী করার অভিজ্ঞতা আমাদের ফেসবুক পেজে শেয়ার করতে ভুলবেন না।

“মাছে ভাতে বাঙ্গালী”

সাদা ভাত, মাছের তরকারি আর সাথে একটা ভর্তা। আমার মনে হয়না বাঙ্গালীদের এর চাইতে ভালো কিছু খেতে দিয়ে ইম্প্রেস করা সম্ভব। আমার চ্যানেলে আমি বরাবরই ট্রেডিশনাল রেসিপিগুলি তুলে ধরার চেষ্টা করছি এবং তারই ধারাবাহিকতায় এখন দেখাচ্ছি দেশীয় হোটেল স্টাইলে ফিশ কারি রেসিপি।

ফিশ কারি তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে (আমি এখানে ৫০০ গ্রাম ওজনের দু’টি রূপচাঁদা মাছ নিয়েছি, এবং সেই অনুপাতে সমস্থ উপকরণ দিয়েছি। আপনারা যে মাছ দিয়েই এই রান্নাটি করেন, উপকরণগুলির পরিমাণ এরকমই থাকবে):

  1. মাছ ৫০০ গ্রাম
  2.  মাছ ৫০০ গ্রাম
  3. শুকনো মরিচের গুঁড়ি
    • মাছ ভাজতে ০.৫ চা চামুচ
    • মাছ রান্না করতে ১ চা চামুচ
  4. হলুদের গুঁড়ি
    • চিমটি পরিমাণ মাছ ভাজতে
    • চিমটি পরিমাণ মাছ রান্না করতে
  5. ধনে গুঁড়ি
    • ০.৫ চা চামুচ মাছ ভাজতে
    • মাছ রান্না করতে ১ চা চামুচ
  6. লবণ
    • মাছ ভাজতে ০.৫ চা চামুচ
    • মাছ রান্না করতে ১ চা চামুচ
  7. রসুন বাটা
    • মাছ ভাজতে ০.৫ চা চামুচ
    • মাছ রান্না করতে ১ চা চামুচ
  8. আদা বাটা
    • মাছ ভাজতে ০.৫ চা চামুচ
    • মাছ রান্না করতে ০.৫ চা চামুচ
  9. তেল
    • ০.৫ কাপ মাছ ভাজতে
    • মাছ রান্না করতে ০.৫ কাপ
  10. পেঁয়াজ কুচি ১.৫ কাপ
  11. গোটা জিরা ১ চা চামুচ
  12. টমেটো ০.৫ কাপ
  13. কাঁচা মরিচ ৫/৬ টি
  14. ভাজা জিরা গুঁড়ি ১ চা চামুচ

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

ভর্তার প্রতি দুর্বলতাটা বাঙ্গালীর নতুন কিছু না। তবে সবচাইতে বেশী দুর্বলতা হলো হোটেলের ভর্তাগুলির প্রতি। আমাদের একটা ধারণা আছে যে হোটেলে যে ভর্তা তৈরী হয়, সেটা আমাদের পক্ষে তৈরী করা সম্ভব না। অনেক রাঁধুনী আবার বলেন যে হোটেলে ভর্তা পরিমাণে অনেক বেশী করে করা হয়, তাই টেস্ট অনেক বেশী হয়। আমরা বলবো আপনি যদি সঠিক রেসিপি জানেন, তাহলে সবকিছুই সঠিকভাবে করা সম্ভব। এখন তৈরী করে দেখাচ্ছি বাংলাদেশী হোটেলের স্টাইলে চিংড়ি মাছের ভর্তা।

ভর্তাটা তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. চিংড়ি মাছ ০.৫ কাপ
  2. পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ
  3. চিমটি পরিমাণ হলুদের গুঁড়ি
  4. লবণ ০.৫ চা চামুচ
  5. শুকনে মরিচ ৪/৫ টি
  6. রসুন কুচি ১ টেবিল চামুচ
  7. আদা কুচি ১ চা চামুচ
  8. সরিষার তেল ২ টেবিল চামুচ

পুরো প্রসেসটাই কিন্তু করতে হবে চুলোটা মাঝারি আঁচে রেখে…

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

তৈরী করছি বাঙ্গালীদের জন্য স্টেক। বাঙ্গালীদের জন্য এই কারণে বললাম, বাঙ্গালীরা কিন্তু পশ্চিমাদের মতো অর্ধ-কাঁচা গোলাপী মাংস খাবেনা আবার আরবদের মতো শক্ত মাংসও খাবেনা। তো আমি মনেকরি আমার রেসিপিটি বাঙ্গালীদের জন্য পারফেক্ট একটা স্টেক রেসিপি।

স্টেক তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

স্টেক তৈরী করতে লেগেছে –

  1. ষাড়ের রিব-আই মাংসের টুকরো ২৫০×২=৫০০ গ্রাম
  2. ৫০ গ্রাম বাটার
  3. সয় সস ২ চা চামুচ
  4. অলিভ ওয়েল ১ চা চামুচ
  5. লবণ ০.৫ চা চামুচ
  6. গোল মরিচের গুঁড়ি ২ চা চামুচ

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।