Tagged: আলু

অনেক ট্রেডিশনাল এবং অনেক রিকোয়েস্ট ছিলো এই রেসিপিটার। অনেকেই মুরগির মাংস রান্না করার ওস্তাদ, কিন্তু আমাকে অনেকেই বলেন যে আপু আমার মাংসটা কিছুতেই পারফেক্ট হয়না। তাই আমি এই রান্নার খুঁটি নাটি নিয়ে এখন হাজির হলাম।

আলু দিয়ে মুরগির মাংস তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে লেগেছে –

  1. মুরগির মাংস ১ কেজি
  2. আলু ০.৫ কেজি
  3. টমেটো ০.৫ কাপ
  4. পেঁয়াজ কুচি ১ কাপ
  5. পেঁয়াজ বাটা ০.৫ কাপ
  6. মরিচের গুঁড়ি
    • মেরিনেশনে ১ টেবিল চামুচ
    • রান্নার সময় ১ চা চামুচ
  7. হলুদের গুঁড়ি
    • মেরিনেশনে ০.৫ চা চামুচ
    • রান্নার সময় ১ চিমটি
  8. লবণ
    • মেরিনেশনে ১ চা চামুচ
    • রান্নার সময় ১ চা চামুচ
  9. রান্নার তেল ১ কাপ
  10. রসুন বাটা ১ টেবিল চামুচ
  11. আদা বাটা ১ টেবিল চামুচ
  12. ধনে গুঁড়ি ১ টেবিল চামুচ
  13. জিরা গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  14. গরম মশলার গুঁড়ি ২ টেবিল চামুচ
  15. কাঁচা মরিচ ৫/৬ টি
  16. বড় এলাচ ২ টি
  17. ছোটো এলাচ ৪ টি
  18. দারুচিনি ২০ সেঃমিঃ আনুমানিক
  19. লং ৬/৭ টি
  20. গোল মরিচ ০.৫ চা চামুচ

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমার অগনিত দর্শক আমাকে মাঝে মধ্যে অনুরোধ করেছেন বিকেল বেলায় নাশতা হিসেবে খাবার জন্য বা বাচ্চাদের স্কুলে টিফিন দেবার জন্য সহজ কিছু স্ন্যাক্সের রেসিপি দিতে। সেজন্য আমি খুবই সহজ একটা স্ন্যাক্স-এর রেসিপি দিচ্ছি, পটেটো চীজ বল। আশাকরি সবার ভালো লাগবে….

পটেটো চীজ বল তৈরী করার পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. ১ কেজি আলু
  2. ২ টেবিল চামুচ বাটার
  3. প্রয়োজন মতো মোজারেলা চীজ
  4. ১.৫ চা চামুচ লবণ
  5. ধনে পাতা ১ টেবিল চামুচ
  6. পুদিনা পাতা ১ টেবিল চামুচ
  7. ১ চা চামুচ গোল মরিচের গুঁড়ি
  8. ১ চা চামুচ আধা ভাঙ্গা শুকনো মরিচ (শুকনো মরিচ)
  9. প্রয়োজন মতো ব্রেড ক্রাম্ব

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজ আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমাদের দেশী খাবারের হোটেলগুলির একটা বিশেষত্ব আছে, তাদের প্রতিটা খাবারের রেসিপি ইউনিক। সেটা পরটা হোক, হালিম হোক, আর কাবাব হোক, একটার থেকে আরেকটা ভিন্ন এবং সুস্বাদু। প্রতিটি খাবারের মতো হোটেলে যে মিক্সড্ সবজিটা পরিবেশন করে, সেটাও সবকিছু থেকে ভিন্ন। আমার মনে হয়না, পৃথিবীর আর কোথাও এত সুন্দর সবজি পরিবেশন করা হয়। এই রেসিপিটার জন্য অনেক অনুরোধ ছিলো, তাই তৈরী করে ফেললাম বাংলা হোটেল স্টাইলে সবজি।

ডিমের জর্দা তৈরীর পদ্ধতি দেখি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. ১ কাপ কাঁচা পেপে
  2. ১ কাপ ফুল কপি
  3. ১ কাপ গাজর
  4. ১ কাপ শসা
  5. ১ কাপ মিষ্টি কুমড়া
  6. ১ কাপ পটল
  7. ১ কাপ আলু
  8. ০.৫ কাপ ছোলা বুটের ডাল
  9. তেজ পাতা ৩ টি
  10. শুকনো মরিচ ৫ টি
  11. কাঁচা মরিচ ৫ টি
  12. আদা বাটা ১ চা চামুচ
  13. রসুন বাটা ১ চা চামুচ
  14. রসুন ১০/১২ কোয়া
  15. পেঁয়াজ কুচি
    • ০.৫ কাপ সবজিতে
    • ০.২৫ কাপ বাগারে
  16. ধনে গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  17. জিরা গুঁড়ি ০.৫ চা চামুচ
  18. হলুদের গুঁড়ি ০.২৫ চা চামুচ
  19. ১ চা চামুচ লবণ
  20. রান্নার তেল
    • সবজিতে ০.৫ কাপ
    • বাগারে ০.২৫ কাপ
  21. পাঁচফোড়ন ১ চা চামুচ
  22. গোটা জিরা ০.৫ চা চামুচ

তৈরী করে আমাদের ফেসবুক পেজে আপনার অভিজ্ঞতা শেয়ার করতে ভুলবেন না।

আমরা যখন ছোটো ছিলাম ছোলা বুটের ডাল দিয়ে মাংসের আইটেমটাকে একদম আলাদা মর্যাদা দেয়া হতো। বিয়ে বাড়ি হোক, জন্মদিন হোক বা অন্য গেট টুগেদার হোক, সব সময় এই ডালটা সবার আগে পরিবেশন করা হতো। এখন হয়তো অন্য সব খাবারের ভীঁড়ে এই আইটেমের পরিবেশন কম হয়, তাই বলে ঐতিহ্যবাহী ছোলা বুটের ডাল দিয়ে মাংসের স্বাদ কিন্তু কমে যায়নি।

ছোলা বুটের ডাল দিয়ে মাংস রান্নার প্রণালীটি দেখি ভিডিওতে:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

ছোলা বুটের ডাল দিয়ে মাংস রান্না করতে যা যা লেগেছে…

  1. ৫০০ গ্রাম ছোলা বুটের ডাল
  2. ৫০০ গ্রাম মাংস (গরু/খাসি)
  3. ২ কাপ পেঁয়াজ কুঁচি
  4. ৬/৭ টি লং
  5. ৩ টি বড় এলাচ
  6. ৫/৬ টি ছোটো এলাচ
  7. তেজ পাতা ৩ টি
  8. দারুচিনি প্রায় ৮/১০ সেন্টিমিটার
  9. গরম মশলার গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  10. প্রায় ২০ টি কালো গোল মরিচ
  11. শুকনো মরিচের গুঁড়ি ১ টেবিল চামুচ
  12. জিরা বাটা ১ টেবিল চামুচ
  13. প্রয়োজন মতো লবণ
    1. ১ চা চামুচ ডাল সেদ্ধ করতে
    2. ১ চা চামুচ রান্নার সময়
    3. ২ চা চামুচ লবণ (মেরিনেশনের সময়)
  14. ধনে গুঁড়ি ১ টেবিল চামুচ
  15. হলুদের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  16. প্রয়োজন মতো কাঁচা মরিচ
    1. মেরিনেশনের সময় ৮ টি
    2. রান্নার সময় ৫/৬ টি
  17. ১ টেবিল চামুচ আদা বাটা
  18. ২ টেবিল চামুচ রসুন বাটা
  19. ভাজা জিরা গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  20. রান্নার তেল ০.৫ কাপ

গরম মশলার গুঁড়িতে যা আছে:

  1. জিরা – ১ চা চামুচ
  2. এলাচ – ৩/৪ টি
  3. দারুচিনি ৫ সেন্টি মিটারের মতো
  4. লং – ৭/৮ টি
  5. গোল মরিচ – ৭/৮ টি
  6. শাহী জিরা – ১ চা চামুচ (বেশী দিলে ভালো লাগবেনা)
  7. গোটা ধনিয়া – আধা চা চামুচ
  8. মৌরি – আধা চা চামুচ

গরম মশলা তৈরীর জন্য সব একসাথে গরম তাওয়ায় হালকা টেলে নিয়ে গুঁড়ো করেছি। তবে বাজার থেকে ভালো ব্র্যান্ডের রেডিমেড গরম মশলার গুঁড়িও ব্যবহার করা যাবে।

আমাদের উত্তরবঙ্গে অনেক গ্রাম আছে যেখানে এই মাংস ছাড়া অতিথির আপ্যায়ন হয়না বা বরযাত্রীর খাতিরদারি হয়না। গ্রাম বাংলায় ভীষণ প্রসিদ্ধ এবং ঐতিহ্যবাহী একটা রেসিপি এই মশলাই আলু গোশত্, তবে গ্রামের রেসিপিটার সাথে আমারটার একটু পার্থক্য রয়েছে। গ্রামে রান্নাটা করা হয় প্রায় দ্বিগুন তেলে আর রান্নার সময় গরুর পেটের পর্দার চর্বিটাও যোগ করা হয়, পরে পরিবেশনের সময় তেলটুকু আলাদা মাটির হাঁড়িতে করে খাবারের পাতে দেয়া হয় ডালের মতো। আমরা এখন অনেক স্বাস্থ্য সচেতন, তাই সেভাবে রান্না না করে একটু কম তেলে একই ট্রেডিশন বজায় রেখে রান্নাটা দেখালাম। আশাকরি সবারই পছন্দ হবে রেসিপিটি।

ঐতিহ্যবাহী মশলাই আলু গোশত্-এর প্রস্তুত প্রণালীটি দেখি ভিডিওতে:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

মশলাই আলু গোশত্ তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. গরুর মাংস – ১ কেজি
  2. আলু – ০.৫ কেজি
  3. পেঁয়াজ – ১.৫ কাপ
  4. আদা বাটা – ২ টেবিল চামুচ
  5. রসুন বাটা – ৩ টেবিল চামুচ
  6. গরম মশলার গুঁড়ি –
    1. মাংস মেরিনেশনে ১ টেবিল চামুচ
    2. রান্নার মাঝখানে ১ টেবিল চামুচ
  7. শুকনো মরিচের গুঁড়ি – ২ চা চামুচ
  8. হলুদের গুঁড়ি – ১ চা চামুচ
  9. ধনে গুঁড়ি – ২ টেবিল চামুচ
  10. কালো গোল মরিচ গোটা – প্রায় ২৫ টি
  11. শুকনো মরিচ – ৪/৫ টি
  12. ছোটো এলাচ – ৭/৮ টি
  13. জিরা গুঁড়ি –
    1. ১ টেবিল চামুচ মাংস মেরিনেশনে
    2. ১ চা চামুচ রান্নার মাঝখানে
  14. তেঁজ পাতা – ২ টি
  15. দারুচিনি – প্রায় ৫ সেন্টিমিটার
  16. লং – ১০/১২ টি
  17. রান্নার তেল – ১ কাপ
  18. লবণ – স্বাদ মতো (আমি এখানে ২ টেবিল চামুচ দিয়েছি)

গরম মশলার গুঁড়িতে যা আছে:

  1. জিরা – ১ চা চামুচ
  2. এলাচ – ৩/৪ টি
  3. দারুচিনি ৫ সেন্টি মিটারের মতো
  4. লং – ৭/৮ টি
  5. গোল মরিচ – ৭/৮ টি
  6. শাহী জিরা – ১ চা চামুচ (বেশী দিলে ভালো লাগবেনা)
  7. গোটা ধনিয়া – আধা চা চামুচ
  8. মৌরি – আধা চা চামুচ

গরম মশলা তৈরীর জন্য সব একসাথে গরম তাওয়ায় হালকা টেলে নিয়ে গুঁড়ো করেছি। তবে বাজার থেকে ভালো ব্র্যান্ডের রেডিমেড গরম মশলার গুঁড়িও ব্যবহার করা যাবে।

আমার চ্যানেলে ট্রেডিশনাল কাচ্চি বিরিয়ানির ভিডিওটি আপলোড করার পরে প্রচুর রিকোয়েস্ট এসেছে কিভাবে প্রসেসটি আরেকটু সহজ করা যায়। যেমন, আটা দিয়ে হাঁড়িটা সিল না করে সহজ কিছু করা যায় কি-না।

অনেক আগে আমার শ্বশুর-আব্বার কাছ থেকে শিখেছিলাম কিভাবে গামছা ব্যবহার করে বিরিয়ানি দমে দিতে হয়। এখন সেটাই দেখাচ্ছি গামছা দমে কাচ্চি বিরিয়ানি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

কাচ্চি বিরিয়ানি তৈরী করতে যা যা লেগেছে –

  1. খাসির মাংস ১ কেজি
  2. সুগন্ধি পোলাওর চাল ০.৫ কেজি
  3. পিঁয়াজ বেরেস্তা ১ কাপ
  4. রান্নার তেল ০.৫ কাপ
  5. টক দৈ ১ কাপ
  6. রসুন বাটা ২ টেবিল চামুচ
  7. আদা বাটা ১.৫ টেবিল চামুচ
  8. শুকনো মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  9. লবণ স্বাদ অনুযায়ী প্রয়োজন মতো
  10. ফুল ক্রিম দুধ ১ কাপ
  11. বাটা জয়ফল ১ চা চামুচ
  12. জয়ত্রী প্রায় ২ গ্রাম
  13. গরম মশলার গুঁড়ি ১ টেবিল চামুচ
  14. ঘি
    1. বিরিয়ানিতে ২ টেবিল চামুচ
    2. আলু ঝলসাতে ১ চা চামুচ
  15. জর্দ্দার রঙ প্রয়োজন মতো (আপনারা চাইলে জাফরান ব্যবহার করতে পারেন)
  16. আলু ০.৫ কেজি
  17. শাহী জিরা ১ চা চামুচ
  18. আলু বোখারা ৪/৫ টি
  19. কেওড়ার জল ২ টেবিল চামুচ
  20. গোলাপ জল ২ টেবিল চামুচ

গরম মশলার গুঁড়িতে যা আছে:

  1. জিরা – ১ চা চামুচ
  2. এলাচ – ৩/৪ টি
  3. দারুচিনি ৫ সেন্টি মিটারের মতো
  4. লং – ৭/৮ টি
  5. গোল মরিচ – ৭/৮ টি
  6. শাহী জিরা – ১ চা চামুচ (বেশী দিলে ভালো লাগবেনা)
  7. গোটা ধনিয়া – আধা চা চামুচ
  8. মৌরি – আধা চা চামুচ

আশাকরছি রেসিপিটি সবার কাজে আসবে এবং বিরিয়ানি রান্না নিয়ে আর কারও কোনো আতঙ্ক থাকবেনা। 🙂

স্খান ভেদে বিরিয়ানি বা বিরানির অনেক রকমের নাম আছে যেমন: পাঞ্জাবি মুর্গ বিরিয়ানি, ক্যালকাটা বিরিয়ানি, কাচ্চি বিরিয়ানি, মুরগ পোলাও। এগুলির মধ্যে আমাদের ঢাকায় তথা বাংলাদেশে যেটা সবচাইতে জনপ্রিয়ভাবে তৈরী হয় বা খাওয়া হয়, সেটা হলো কাচ্চি বিরিয়ানি। বলা যেতে পারে কাচ্চি বিরিয়ানি আমাদের বাংলাদেশী বিরিয়ানি। তেহারীর সাথে বিরিয়ানির মুল পার্থক্য হলো বিরিয়ানিতে মাংসের টুকরা বেশ বড় হয়।

বিরিয়ানি নাম শুনলেই জিভে যেমন পানি চলে আসে, ঠিক তেমনি রাঁধুনীরা যারা কখনো বিরিয়ানি তৈরী করেননি, একটু হলেও ভয় পেয়ে যান, এই ভেবে যে না জানি বিরিয়ানি তৈরীর প্রক্রিয়া কত কঠিন। সেই ভয় দুর করতেই এখন দেখাচ্ছি বাংলাদেশের ট্রেডিশনাল কাচ্চি বিরিয়ানির রেসিপি:

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

কাচ্চি বিরিয়ানি তৈরী করতে যা যা লেগেছে –

  1. খাসির মাংস ১ কেজি
  2. সুগন্ধি পোলাওর চাল ০.৫ কেজি
  3. পিঁয়াজ বেরেস্তা ১ কাপ
  4. রান্নার তেল ০.৫ কাপ
  5. টক দৈ ১ কাপ
  6. রসুন বাটা ২ টেবিল চামুচ
  7. আদা বাটা ১.৫ টেবিল চামুচ
  8. শুকনো মরিচের গুঁড়ি ১ চা চামুচ
  9. লবণ স্বাদ অনুযায়ী প্রয়োজন মতো
  10. ফুল ক্রিম দুধ ১ কাপ
  11. বাটা জয়ফল ১ চা চামুচ
  12. জয়ত্রী প্রায় ২ গ্রাম
  13. গরম মশলার গুঁড়ি ১ টেবিল চামুচ
  14. ঘি
    1. বিরিয়ানিতে ২ টেবিল চামুচ
    2. আলু ঝলসাতে ১ চা চামুচ
  15. জর্দ্দার রঙ প্রয়োজন মতো
  16. আলু ০.৫ কেজি
  17. শাহী জিরা ১ চা চামুচ
  18. আটা প্রয়োজন মতো
  19. আলু বোখারা ৪/৫ টি
  20. কেওড়ার জল ২ টেবিল চামুচ
  21. গোলাপ জল ২ টেবিল চামুচ

গরম মশলার গুঁড়িতে যা আছে:

  1. জিরা – ১ চা চামুচ
  2. এলাচ – ৩/৪ টি
  3. দারুচিনি ৫ সেন্টি মিটারের মতো
  4. লং – ৭/৮ টি
  5. গোল মরিচ – ৭/৮ টি
  6. শাহী জিরা – ১ চা চামুচ (বেশী দিলে ভালো লাগবেনা)
  7. গোটা ধনিয়া – আধা চা চামুচ
  8. মৌরি – আধা চা চামুচ

আশাকরছি রেসিপিটি সবার কাজে আসবে এবং বিরিয়ানি রান্না নিয়ে আর কারও কোনো আতঙ্ক থাকবেনা। 🙂

আলু ভাজি খুব কমন একটা খাবার আমাদের দেশে। ঝামেলা ছাড়াই তৈরী করা যায় বিভিন্ন রকমের আলু ভাজি। এখন আমি দেখাচ্ছি কুড়মুড়ে আলু ভাজি তৈরীর পদ্ধতি।

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে:

  1. বড় আলু – ৫০০ গ্রাম
  2. বড় পিয়াঁজ – ১টি
  3. শুকনো মরিচ – ৩/৪ টি
  4. গোল মরিচের গুঁড়ি – প্রায় আধা চা চামুচ
  5. শুকনো মরিচের গুঁড়ি – ১ চা চামুচ
  6. লবণ – আধা চা চামুচ
  7. প্রয়োজন মতো রান্নার তেল

অবশ্যই তৈরী করবেন এবং ভালো থাকবেন।

ওয়েন্টার্ন খাবার ম্যাশড পটেটো। তবে এবার আমি না, আমার হাজবেন্ড তৈরী করেছে ম্যাশড পটেটো। খুবই সহজ উপায় ঝট্ পট্ তৈরী করার প্রণালী দেখা যাবে এখানে –

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে

  1. বড় চারটা আলু
  2. ১ টেবিল চামুচ বাটার
  3. আদা কাপ ফুল ক্রিম দুধ
  4. প্রয়োজন মতো গোল মরিচ
  5. প্রয়োজন মতো লবণ

পশ্চিমের আরও একটা সুস্বাদু খাবার টোয়াইস বেইকড্ পটেটো। কোনো বাড়তি ঝামেলা ছাড়াই তৈরী করা যায় এই টোয়াইস বেইকড্ পটেটো। চলুন চট্‌পট্ শিখে নি কিভাবে তৈরী করা যায় টোয়াইস বেইকড্ পটেটো –

ইউটিউবে ভিডিও দেখতে সমস্যা হলে এই লিঙ্ক থেকে ডেইলি মোশনেও ভিডিওটি দেখতে পারেন।

তৈরী করতে যা যা লাগছে…

  1. ৩ টা বড় আলু
  2. প্রয়োজন মতো গোল মরিচের গুঁড়ি
  3. প্রায় ৫০ গ্রাম চিজ
  4. প্রায় ৩ টেবিল চামুচ বাটার
  5. আধা চা চামুচ পাপড়িকা পাউডার
  6. আধা চা চামুচ লবণ