কুইক রেসিপি কুক ২০১৭ প্রতিযোগিতার বিস্তারিত

উদ্দেশ্য

ইট-কাঠের এই যান্ত্রিক শহরে আমাদের জীবন প্রতিদিনই একটু একটু করে কঠিন হয়ে যাচ্ছে, যেখান থেকে অবসর সময় বের করে পরিবারের জন্য মনের মতো খাবার রান্না করাটা বেশ চ্যালেঞ্জিং একটা বিষয় হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমাদের এই অনুষ্ঠানের মূল উদ্দেশ্য হলো কীভাবে খুব অল্প সময়ে মজাদার কিছু রান্না করা যায়, যার গন্ধ হবে অতুলনীয়, স্বাদ হবে দুর্দান্ত এবং সর্বোপরি পুষ্টিগুণে ভরপুর।

সংক্ষিপ্ত বিবরণ

ইউটিউব বাংলা রান্নার চ্যানেল “রুমানার রান্নাবান্না” বাংলাদেশে এই প্রথম সোশ্যাল নেটওয়ার্ক ভিত্তিক “রুমানা’র কুইক রেসিপি কুক ২০১৭” নামের একটি রান্নার প্রতিযোগিতার আয়োজন করেছে। প্রতিযোগিতার এই প্ল্যাটফর্মে আমরা সোশ্যাল মিডিয়া এবং গতানুগতিক ধারা ব্যবহারের মাধ্যমে বিজয়ী নির্বাচন করব, এবং প্রতিযোগিতার সর্বমোট পুরস্কার থাকছে পৌনে এক লক্ষ টাকা।

প্রতিযোগিতাটি তিন ধপে বিভক্ত

প্রথম ধাপ: একটি নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে অংশগ্রহণকারীরা রেসিপি, তৈরীর উপকরণ এবং খাবারের সংক্ষিপ্ত বর্ণনা আমাদের কাছে পাঠাবে। রেসিপি ও বর্ণনা দেখে প্রতিযোগিতার সাথে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষগণ প্রতিযোগি নির্বাচন করবে এবং নির্বাচিত প্রতিযোগিদের দ্বিতীয় ধাপে উত্তীর্ণ করবে।

দ্বিতীয় ধাপ: এই ধাপে প্রতিযোগিরা বিচারকদের উপস্থিতিতে তাদের জমাকৃত এবং নির্বাচিত রেসিপিটি একটি নির্ধারিত সময়ের মধ্যে তৈরি করে দেখাবেন। বিচারকমণ্ডলী সময়, স্বাদ, পুষ্টিগুণ ও পরিবেশনার ও পরিচ্ছন্নতার ভিত্তিতে প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় বিজয়ী নির্বাচন করবেন।

তৃতীয় ধাপ: দ্বিতীয় ধাপে অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগিদের প্রতিটি রান্নার ভিডিওচিত্র ধারণ করে রুমানার রান্নাবান্না ইউটিউব চ্যানেলে প্রকাশ করা হবে। এবং প্রকাশের পরে প্রথম পাঁচ সপ্তাহে দর্শকদের প্রতিক্রিয়ার উপরে ভিত্তি করে রুমানা’র কুইক রেসিপি কুক ২০১৭ পিপলস্ চয়েস অ্যাওয়ার্ড প্রদান করা হবে।

নিবন্ধনপ্রক্রিয়া

নিবন্ধনের জন্য এই পাতার সব নীতিমালার সাথে সহমত হওয়ার পরে এই পাতায় গিয়ে ফর্মটি দাখিল করতে হবে।

গুরুত্বপূর্ণ তারিখসমূহ

  1. নিবন্ধন শুরু – ১৪ ডিসেম্বর ২০১৭
  2. জমা প্রদানের শেষ সময় – ২৫ ডিসেম্বর ২০১৭
  3. প্রথম পর্বের ফলাফল ঘোষণা  – ৩০ ডিসেম্বর ২০১৭
  4. রান্না করে দেখানোর তারিখ ও সময় – প্রতিযোগিদেরকে ফোন করে জানানো হবে
  5. চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা –  পরে ঘোষণা করা হবে
  6. পুরস্কার প্রদান – পরে ঘোষণা করা হবে

রান্নাঘরে প্রদত্ত সামগ্রীসমূহ

অনুষ্ঠানের রান্নাঘরে নিম্নে বর্নিত সামগ্রী ব্যতীত অন্য কোনো সুযোগ-সুবিধা প্রদান করা হবে না। প্রদত্ত সামগ্রী ব্যতীত প্রয়োজনীয় সকল উপাদান প্রতিযোগিকে সঙ্গে করে নিয়ে আসতে হবে।

  • দুই বার্নার গ্যাসের চুলা
  • মিক্সার/ব্লেন্ডার
  • রান্নার জন্য প্রয়োজনীয় প্যান
  • প্রয়োজনীয় চামচ এবং আনুষঙ্গিক হাতাসমূহ
  • রেসিপির মধ্যে যদি সেদ্ধ সাদা ভাত অন্তর্ভুক্ত থাকে, তাহলে প্রতিযোগিকে তা রান্না করতে হবে না। সাধারণ সেদ্ধ ভাত কর্তৃপক্ষ সরবরাহ করবে।

সাধারণ নির্দেশিকা

  • প্রতিযোগিতায় টেস্টিং সল্ট সহ যেকোনো ম্যজিক মসলা ব্যবহার সম্পূর্ণ নিষিদ্ধ।
  • মূল পদ রান্না করার জন্য প্রয়োজনীয় মাছ, মাংস, দুধ, ডিম, শাক, শবজি সহ রান্না শেষে পরিবেশন করার জন্য যাবতীয় সকল উপকরণ সাথে করে নিয়ে আসতে হবে।
  • মাছ/মাংস ধুয়ে, পরিষ্কার করে আনতে হবে।
  • মাংসের কিমা বা মাছের ফিলেট তৈরি করে আনা যাবে কিন্তু সম্পূর্ণরূপে প্রক্রিয়াজাত করে অর্থাৎ ম্যারিনেট করে আনা যাবে না, প্রতিযোগিতা চলাকালে ম্যারিনেশন সহ যাবতীয় প্রক্রিয়া প্রদর্শন করতে হবে।
  • সকল প্রকার মসলা কেটে, বেটে অথবা প্রয়োজন হলে ভেজে নিয়ে আসতে হবে।
  • প্রতিযোগিকে রান্না ও ভাজার জন্য প্রয়োজনীয় তেল, ঘি এবং মাখন ইত্যাদি সাথে করে নিয়ে আসতে হবে।
  • সকল প্রকার প্রয়োজনীয় সস প্রতিযোগি নিয়ে আসবে।
  • সালাদ বা অনুরূপ কোনো পদ তৈরি করার জন্য শাকশবজি বেছে/পরিষ্কার করে আনতে হবে, কিন্তু প্রতিযোগিতা চলাকালে কেটে পরিবেশন করতে হবে।
  • কাটাকাটি করার জন্য প্রয়োজনীয় যন্ত্রপাতি যেমন ছুরি, বটি, পিলার, কাচি ইত্যাদি এবং পরিবেশন করার জন্য প্রয়োজনীয় বাসনপত্র সঙ্গে করে নিয়ে আসতে হবে।
  • প্রয়োজন ছাড়া অতিরিক্ত কোনো উপাদান ব্যবহার না করার জন্য উৎসাহিত করা যাচ্ছে।
  • প্রস্তুতি এবং উপস্থাপনা শেষে রান্নাঘর পরিষ্কারের জন্য আলাদা সময় নির্ধারণ করে দেওয়া হবে এবং পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতার ভিত্তিতেও নম্বর প্রদান করা হবে।
  • কোনো কারণে প্রতিযোগি নির্ধারিত সময়ে প্রতিযোগিতায় উপস্থিত হতে না পারলে প্রতিযোগিকে অযোগ্য বিবেচনা করা হবে।

অনুষ্ঠানসূচি

প্রত্যেক প্রতিযোগিকে এককভাবে রান্না ও উপস্থাপনের সুযোগ দেয়া হবে। তাই প্রত্যেক প্রতিযোগিকে আলাদাভাবে তারিখ ও সময় জানিয়ে দেয়া হবে।

বিজয়ী নির্বাচন প্রক্রিয়া

প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানের বিজয়ী নির্বাচনের প্রক্রিয়া –

  • রান্নার সময়
  • খাবার পরিবেশনা
  • খাবারের স্বাদ
  • পুষ্টিগুণ
  • উপকরনের সহজপ্রাপ্যতা
  • পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা

প্রতিটি বিভাগের জন্য ১০ নম্বর করে থাকবে। গড়ে যে প্রতিযোগি বেশী নম্বর পাবে, তাদেরকে ক্রমান্বয়ে প্রথম, দ্বিতীয় ও তৃতীয় স্থানের বিজয়ী ঘোষণা করা হবে।

পিপলস্ চয়েস অ্যাওয়ার্ড

  • এই অ্যাওয়ার্ডের যোগ্য হওয়ার জন্য প্রতিযোগিকে তার রেসিপির ভিডিওতে অন্তত ১০০০ লাইক যোগাড় করতে হবে
  • প্রতিটি ভিডিওর মোট লাইক এবং মোট ভিউ গড় করে যে ভিডিওর সংখ্যা বেশী হবে, সেই প্রতিযোগি পিপলস্ চয়েস অ্যাওয়ার্ড বিজয়ী হবে
  • ভিউ এবং লাইক যোগাড় করার জন্য প্রতিযোগীদের মোট সময় থাকবে ১৫ দিন

উল্লেখ্য যে, ভিউ এবং লাইকের বিষয়টি ইউটিউব নিবিড়ভাবে পর্যবেক্ষণ করে, এবং কোনো রকমে অসৎ উপায় অবলম্বনের জন্য ভিডিও বাতিল করে দিতে পারে। তাই প্রতিযোগিদের কোনো অসৎ উপায় অবলম্বন না করার জন্য হুঁশিয়ার করা হচ্ছে।

পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠান

“রুমানা’র কুইক রেসিপি কুক ২০১৭” প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনকারী প্রতিযোগিদের মধ্য থেকে বিচারকদের রায়ে নির্বাচিত প্রথম, দ্বিতীয় এবং তৃতীয় স্থান অধিকারীদেরকে পুরস্কার প্রদান করা হবে।

পুরষ্কার সমূহ

নগদ ৩০ হাজার টাকা – পিপলস্ চয়েস অ্যাওয়ার্ড

নগদ ২০ হাজার টাকা – প্রথম পুরস্কার
নগদ ১৫ হাজার টাকা – দ্বিতীয় পুরস্কার
নগদ ১০ হাজার টাকা – তৃতীয় পুরস্কার

এছাড়াও অংশগ্রহণকারী সকল প্রতিযোগিদেরকে অংশগ্রহণের সনদ প্রদান করা হবে।

প্রতিযোগিতার শর্তাবলী

  • প্রতিযোগিতাটি শুধুমাত্র বাংলাদেশের নাগরিক এবং স্থায়ী ভাবে বসবাসকারীদের জন্য উন্মুক্ত।
    এই প্রতিযোগিতাটি বাস্তবায়ন করা সম্ভব হয়েছে বাংলাদেশী স্পনসরদের অর্থায়নে। দেশের প্রচলিত নীতিমালা অনুযায়ী দেশীয় স্পনসরের টাকা বিদেশী/প্রবাসীদের কাছে বৈধভাবে হস্তান্তর সহজ নয়। এই মুহূর্তে আমাদের স্পনসর এবং আমরা এই জটিল প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে অনুমোদন যোগাড় করার ক্ষমতা রাখিনা। তাই প্রতিযোগিতাটি আপাতত বাংলাদেশে স্থায়ী ভাবে বসবাসরত নাগরিকদের জন্যই সীমাবদ্ধ থাকছে। আমাদের আয়োজনের সীমাবদ্ধতার জন্য আমাদের প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণে ইচ্ছুক প্রবাসী দর্শকদের কাছে আমরা ক্ষমা প্রার্থী।
  • প্রতিযোগি যে রেসিপি দিয়ে আবেদন করবে, প্রতিযোগিতার দ্বিতীয় ধাপের জন্য নির্বাচিত হলে ঐ রেসিপিই রান্না করে দেখাতে হবে এবং কোনো অবস্থাতেই উপকরণ বা রেসিপির পরিবর্তন করা যাবেন।
  • শুধুমাত্র ১৪ বছর বা তদূর্ধ্ব বয়সের প্রার্থীরা প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহন করতে পারবে।
  • প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীরা নিম্নলিখিত তথ্যগুলি প্রদান করবেন –
    • সম্পূর্ণ নাম (পরিচয় পত্র অনুযায়ী)
    • স্থায়ী ও বর্তমান ঠিকানা
    • সচল একটি মোবাইল নম্বার (একটি বিকল্প মোবাইল নম্বর দেয়া যাবে)
    • বয়স ১৮ বছরের কম হলে অভিভাবকের অনুমতিপত্র এবং পত্রের সাথে অভিভাবকের জাতীয় পরিচয় পত্র ও সক্রিয় মোবাইল নম্বর সরবরাহ করতে হবে।
    • ছবি সহ জাতীয় অথবা প্রাতিষ্ঠানিক পরিচয় পত্র।
  • প্রতিযোগিকে অবশ্যই সামাজিক, উপস্থাপনযোগ্য পোশাক পরে আসতে হবে।
  • প্রতিযোগির সাথে শুধুমাত্র একজন অতিথি অনুষ্ঠানে আসতে পারবে এবং ৭ বছর বয়সের উপরের যে কাউকে অতিথি হিসাবে গণ্য হবে।
  • প্রতিযোগিতা চলার সময় অতিথির সাথে কোনো রকমের যোগাযোগ প্রতিযোগির অযোগ্যতা হিসেবে ধরা হবে এবং ঐ প্রতিযোগির জন্য প্রতিযোগিতা বাতিল করা হবে।
  • নির্ধারিত তারিখ ও সময়ের পর কোনো প্রকার রেজিস্ট্রেশন গ্রহণ করা হবে না।
  • অসম্পূর্ণ নিবন্ধন, মিথ্যা তথ্য প্রদান অথবা জালিয়াতির ক্ষেত্রে কোনো প্রকার দায়-দায়িত্ব কর্তৃপক্ষ নেবে না, এবং প্রমাণ হওয়ায় প্রতিযোগিতা বাতিলের সমস্ত ক্ষমতা কর্তৃপক্ষ সংরক্ষণ করে।
  • এই প্রতিযোগিতাটি রুমানার রান্নাবান্না’র সাথে আইডিয়া ফিফটি টু দ্বারা যৌথভাবে পরিচালিত।
  • সকল ক্ষেত্রে রুমানার রান্নবান্না, আইডিয়া ৫২ এবং উপস্থিত বিচারকদের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত বলে বিবেচিত হবে।
  • পুরস্কার বিতরন অনুষ্ঠান শুধুমাত্র প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণকারীদের জন্য উন্মুক্ত।
  • ১৮ বছর বয়সের নিচের অংশগ্রহণকারী প্রতিযোগি যদি বিজয়ী হয়, তাহলে তার পুরস্কার অভিভাবকের নিকট হস্তান্তর করা হবে।
  • প্রতিযোগিদের কোনো প্রকার ব্যক্তিগত আঘাত, ক্ষয়-ক্ষতি বা অন্য কোনো প্রকার লোকসানের জন্য কর্তৃপক্ষ দায়ী থাকবে না। তবে প্রতিযোগিতা চলাকালীন সময়ে প্রাথমিক চিকিৎসার ব্যবস্থা থাকবে।
  • প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহনই উপরের শর্তাবলির গ্রহন যোগ্যতা নির্দেশ করে। এবং রুমানা রান্নাবান্না কর্তৃপক্ষ যেকোনো সময়ে নীতিমালার পরিবর্তন, পরিমার্জন ও পরিবর্ধন করার অধিকার সংরক্ষণ করে, সাথে নীতিমালা পরিপন্থী যেকোনো রেজিস্ট্রেশন যে-কোনো সময়ে বাতিলের অধিকার সংরক্ষণ করে।

নিবন্ধন

অংশগ্রহণ করতে চাইলে আপনি এই ফর্মটি পুরণ করে প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করতে পারেন।

গোপনীয়তার নীতিমালা

প্রতিযোগি কর্তৃক সরবরাহকৃত তথ্যসমূহ শুধুমাত্র “রুমানা’র কুইক রেসিপি কুক ২০১৭” প্রতিযোগিতায় ব্যবহার করা হবে এবং কোনো অবস্থাতেই স্পনসর সহ অন্য কোনো তৃতীয় পক্ষের কাছে হস্তান্তর করা হবে না।

প্রতিযোগিতার নামকরণ

আমাদের সমস্ত পরিকল্পনা এবং প্রাথমিক কার্যক্রম ২০১৭ সালে শুরু হচ্ছে, তাই নামে আমরা ২০১৭ ব্যবহার করেছি।

এই পাতাটি সর্বশেষ ১৮ ডিসেম্বর ২০১৭ তারিখ বাংলাদেশ সময় দুপুর ৩:৩০-এ আপডেট করা হয়েছে…